top of page

কলিযুগে কুন্তল দের বেকারত্ব এর গল্প বলল "কাছের মানুষ"


সিনেমা - কাছের মানুষ

অভিনয়ে - দেব প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ইশা

পরিচালক - পথিকৃৎ বসু

পরিচালনায় - দেব এন্টারটেইনমেন্ট ভেঞ্চার

রেটিং - ৯.৮/১০


সব কিছু রিভিউ বক্স অফিস দিয়ে বিচার করা যায় না কাছের মানুষ তেমন একটা সিনেমা।এক কথায় অসাধারণ অনবদ্য বাস্তবতা কে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে কাছের মানুষ। হিট ফ্লপ এর উর্দ্ধে থাকবে কাছের মানুষ।আজ থেকে একশো বছর পর যদি কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনা হয় আমার দৃঢ় বিশ্বাস তার মধ্যে কাছের মানুষ এর নাম থাকবে‌।

আমাদের জীবনে মনখারাপ দুঃখ কষ্ট সব থাকবে।সেটা আমরা কখনো প্রকাশ করতে পারি আবার কখনো পারিনা। প্রকাশ করতে না পেরে আমরা তখন জীবনে ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলি। কিন্তু সময় নিয়ে ভাবনা চিন্তা করে আমরা ও পারি আবার জীবন যাপন টা নতুন করে শুরু করতে। আর একবার যদি আমরা জীবন টা নতুন করে শুরু করি তাহলে জীবন আমাদের অনেক কিছু দেই "কাছের মানুষ" প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত এটা চোখে আঙুল দিয়ে শিখিয়ে দিলো শিখিয়ে দিলো হার কে না মেনে নিয়ে সেটা থেকে শিক্ষা নিয়ে জিতে ফেরা যায়। শুধু একটু ধৈর্য্য ধরে সমস্ত কিছুর সাথে লড়াই করে যেতে হবে ব্যাস দেখবেন জীবন টা কত সুন্দর।

মৃত্যুটা আমাদের জীবনে কোনো সমাধান নয় কারণ তোমার সমস্যা জন্য তোমার কাছের মানুষ গুলো কে কষ্ট দিয়ে মৃত্যু পর ও কী শান্তি পাবে যখন দেখবে তোমার কাছের মানুষ তোমার জন্য কষ্ট পাচ্ছে সেই কষ্টের কারনে সে যদি কোনো ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে নেই পারবে তো পালিয়ে গিয়েও নিজেকে ক্ষমা করতে। এর থেকে ভালো কাছের মানুষ কে নিয়ে বাকি জীবন টা কাটিয়ে দেওয়া।তাতে আপনি ও ভালো থাকবে আর আপনার ভালোবাসা ও ভালো থাকবে। "কাছের মানুষ " আরো একবার বুঝিয়ে দিলো।

সে তোমার যত কাছের হোক কারুর ভরসায় নিজের কাছের মানুষ কে ফেলে চলে যাওয়া স্বার্থবরতা তোমার কাছের মানুষ দেখে রাখার দায়িত্ব তোমার "কাছের মানুষ " এক দৃষ্টিতে এটাও সব বুঝিয়ে দিলো।

এর সাথে বর্তমান পরিস্থিতি কে তুলে ধরেছে সুন্দর ভাবে। মধ্যবৃত্ত ঘরের প্রতিটা ছেলে মেয়েদের প্রতি দিনের জীবনের গল্প বলেছে কাছের মানুষ। একটা চাকরি পাওয়ার জন্য যে হাহাকার চলছে প্রতিটা মুহূর্তে তার পরিষ্কার ভাবে ফুটে উঠেছে। ঠিক বয়সে একটা চাকরি কতটা দরকার।


পথিকৃৎ বসু সত্যি প্রমান করে দেখালো চেষ্টা করলে কী না হয়।এই চেষ্টা আরো ভালো করে চলতে থাকুক।


মধুরা দি কথা যত বলবো কম বলা হবে এত সুন্দর ভাবে উত্তর থেকে দক্ষিণ কোলকাতা কে তুলে ধরা হয়েছে বিশেষ করে রাতের কোলকাতা সিন গুলো সত্যি অনবদ্য।


নীল দার মিউজিক নিয়ে তো কোনো কথাই নেই কিশমিশ দুই গুণ বেশি ভালো কাজ হয়েছে।প্রতিটা গান সিনেমা নির্দিষ্ট জায়গায় ভালো ভাবে ব্যবহার করা হয়েছে।

বাউল গান টা একটা আলাদা জায়গা নিয়েছিল সিনেমাতে এই সিন টার সময় হলটা পাঁচ মিনিট জন্য নিস্তব্ধ ছিল।


অভিনয় নিয়ে কিছু বলার নেই প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ইশা দেব সবার অভিনয় সত্যি অনবদ্য। বিশেষ করে শেষে আগুন ছিল পুরো। যারা দেবের অভিনয় নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন আমার সন্দেহ তারা অভিনয়ের অ জানে কিনা।

লোকটা প্রতিটা মুহূর্তে চেষ্টা করে চলছে কী ভাবে নিজেকে ভেঙে আরো সুন্দর করে তোলা যায়। সত্যি কুর্নিশ ওনাকে এই চেষ্টার জয় হোক।

সব মিলিয়ে কাছের মানুষ সত্যি অনবদ্য হয়ে থাকবে। এরপর অনেক সিনেমা আসবে কাছের মানুষ সেরা হয়ে থাকবে।

সবার কাছে একটাই অনুরোধ পুজোতে ঠাকুর দেখা খাওয়া দাওয়া প্রিয় হিরো সিনেমা দেখা সব শেষ করে একবার জন্য কাছের মানুষ দেখুন।১০০%সিউর আপনি অনেক কিছু নিয়ে ফিরবেন বিশ্বাস করুন। একবার দেখুন বারবার দেখতে ইচ্ছে করবে।

সবাইকে শারদীয়া শুভেচ্ছা। কাছের মানুষ টিমের জন্য অনেক শুভেচ্ছা।

コメント


bottom of page